ব্রাহ্মসামাজ

নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান

জীবনের প্রধান প্রধান ব্যাপারে পরিবারস্থ লোকদিগের ও সমাজের বন্ধুদিগের সহিত হৃদয়যোগে যুক্ত হইয়া, সেই ব্যাপার হইতে উত্থিত সুখ দু:খ ও আকাঙ্ক্ষা ঈশ্বরের চরণে নিবেদন- ইহাই নৈমিত্তিক অনুষ্ঠানের প্রধান করা।

নৈমিত্তিক অনুষ্ঠানে বাহ্যড়ম্বরের বাহুল্য করিলে তাহাতে প্রাণ থাকে না ; ঈশ্বরের দিকে হৃদয় উত্তোলন নাম মাত্র হইয়া পরেড় ; অধিক ব্যয় ও অধিক পরিশ্রমের ফলে পরে মনে অশান্তি উপস্থিত হয়।

অতএব ব্রাহ্মগণ নৈমিত্তিক অনুষ্ঠানে বাহ্যড়ম্বরের বাহুল্য করিবেন না। যে প্রকারে অনুষ্ঠানটি করিলে অনুষ্ঠানকারীর বাহুল্য করিবেন না। যে প্রকারে অনুষ্ঠানটি করিলে অনুষ্ঠানকারীর হৃদয়ের ভাব উপযুক্ত রূপে প্রকাশ পায, সেইরূপ একটি কার্য্যপ্রাণালী তিনি নিজেই ভাবিয়া লইবেন। কোনও বিশেষ প্রথাকে অবশ্য-অনুসরণীয় বলিয়া মনে করিবেন না।

সাধারণত: ব্রাহ্মদিগকে যে সকল নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন করিতে হয়, তাহার প্রণালী যেরূপ হইলে ভাল হয়, তাহা এই অধ্যায়ে নির্দেশ করা যাইতেছে। কোন কোনটির উপযোগী প্রার্থনাদির আদর্শও প্রদত্ত হইতেছে।

ব্রাহ্ম প্রত্যেক অনুষ্ঠান যথোপযুক্ত গাম্ভীর্য্যের সহিত নির্ব্বাহ করিবেন। যে সকল অনুষ্ঠানের অঙ্গস্বরূপ আমোদ আহ্লাদ করিতে হয়, তাহাতেও ঈশ্বরের নিকটে প্রার্থনা বা উপাসনার অংশ যেন উপযুক্ত গাম্ভীর্য্যের সহিত সম্পন্ন হয়।

পারিবারিক অনুষ্ঠানে গৃহস্বামী কিংবা গৃহস্বমিনী উপাসনা প্রার্থনাদি করিলেই তাহা সর্ব্বপেক্ষা শ্রেষ্ঠভাবে সম্পন্ন হয়। পরিবারের সহিত যিনি ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত নহেন, এমন লোক আচার্য্যের কার্য্য করিলে গৃহস্থের হৃদয়ের বাব যথাযথ অনুসৃত হওয়া কঠিন হয়।

সাধারণত: ব্রাহ্মদিগকে যে সকল নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন করিতে হয়, তাহার প্রণালী যেরূপ হইলে ভাল হয়, তাহা এই অধ্যায়ে নির্দেশ করা যাইতেছে। কোন কোনটির উপযোগী প্রার্থনাদির আদর্শও প্রদত্ত হইতেছে।

কিন্তু গৃহস্থগণ এই সকল প্রণালী অবলম্বন এবং এই প্রার্থনাদি পাঠ করিলেও, তাহাকে নিজের প্রয়োজনের অনুরূপ পরিবর্ত্তিত অথবা পরিবর্দ্ধিত করিয়া লইবেন।

…………………………
ব্রাহ্মধর্ম্ম ও ব্রাহ্মসমাজ

……………………………….
ভাববাদ-আধ্যাত্মবাদ-সাধুগুরু নিয়ে লিখুন ভবঘুরেকথা.কম-এ
লেখা পাঠিয়ে দিন- voboghurekotha@gmail.com
……………………………….

………
আরও পড়ুন-
ব্রাহ্মসমাজ
সাধারণ ব্রাহ্মসমাজের সভ্য হইবার যোগ্যতা
ব্রাহ্ম ধর্মের মূল সত্য
ব্রহ্ম মন্দিরের ট্রাস্টডিড
ব্রাহ্মধর্ম্মের মূল সত্য
আত্মা
মানুষের ভ্রাতৃত্ব
উপাসনা ও প্রার্থনা
শাস্ত্র
গুরু
মধ্যবর্ত্তী ও প্রেরিত
সুখ-দু:খ : দু:খবাদ ও আনন্দবাদ
পাপ ও পুণ্য
পুনর্জ্জন্ম
পরকাল
স্বর্গ ও নরক
ধর্ম্ম রক্ষা
পরিবারে পুরুষ ও নারীর অধিকার-সাম্য
ব্রাহ্মসমাজের প্রতি ব্রাহ্মদিগের কর্ত্তব্য
সমবেত উপাসনা
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ 
স্তুতি
বিবিধ অবস্থায় প্রার্থনা
নৈমিত্তিক অনুষ্ঠান
সন্তান জন্ম
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ব্রাহ্মসমাজে প্রবেশ
ধর্ম্মসাধন ব্রতে দীক্ষা
ব্রাহ্মধর্ম্ম গ্রহণ ও ধর্ম্মদীক্ষা
বিবাহ ও তাহার আনুসঙ্গিক অনুষ্ঠান
বিবাহের বাগদান
বিবাহ
মৃত্যু ও অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া
শ্রাদ্ধ
গৃহ প্রবেশ
ব্রহ্ম ও ব্রহ্মের স্বরূপ
ব্রহ্ম ধ্যান
ব্রাহ্মধর্ম
সকলেই কি ব্রাহ্ম?
ব্রাহ্মোপসনা প্রচলন ও পদ্ধতি
আদি ব্রাহ্ম সমাজ ও “নব হিন্দু সম্প্রদায়”
পূর্ণাঙ্গ উপাসনার আদর্শ

প্রাসঙ্গিক লেখা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

error: Content is protected !!